islamic artciles bd

প্লেগ বা মহামারী সম্পর্কিত ৮ টি বিখ্যাত হাদিস Leave a comment

প্লেগ থেকে পলায়ন নিষিদ্ধ।

কুতায়বা (রহঃ) ….. উসামা ইবনু যায়দ রাদিয়াল্লাহু আনহু থেকে বর্ণিত যে, নাবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম প্লেগের আলোচনা প্রসঙ্গে বলেছেন,

এতো আল্লাহর এক আযাবের অবশিষ্টাংশ যা আল্লাহ্ তা’আলা বানু ইসরাইলের এক দলের প্রতি পাঠিয়েছলেন। যখন কোন অঞ্চলে সেই মহামারী দেখা দেয় আর তুমি সেখানে থাক তবে সেখান থেকে বের হয়ে যাবেনা। আর যখন কোন অঞ্চলে তা দেখা দেয় আর সেখানে তুমি না থাক তবে সেখানে তুমি যাবেনা।

বুখারি, মুসলিম, তিরমিজী হাদিস নম্বরঃ ১০৬৫

নিহত হওয়া ছাড়াও সাত প্রকারের শাহাদত রয়েছে

আবদুল্লাহ ইবনু ইউসুফ (রহঃ) … আবূ হুরায়রা (রাঃ) থেকে বর্ণিত, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন,

পাঁচ প্রকার মৃত ব্যাক্তি শহীদঃ মহামারীতে মৃত ব্যাক্তি, পেটের পীড়ায় মৃত ব্যাক্তি, পানিতে ডুবে মৃত ব্যাক্তি, ধ্বংসস্তূপে চাপা পড়ে মৃত ব্যাক্তি এবং যে আল্লাহর পথে শহীদ হল, সে ব্যাক্তি।

সহীহ বুখারী (ইফাঃ) / হাদিস নাম্বার: 2633

মহামারী মুমিনের জন্য রহমতস্বরুপ

মূসা ইবনু ইস্‌মাঈল (রহঃ) … নাবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম সহধর্মিণী আয়িশা (রাঃ) হতে বর্ণিত। তিনি বলেন, আমি রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম কে প্লেগ সম্পর্কে জিজ্ঞাসা করলে, উত্তরে তিনি বলেলেন,

তা একটি আযাব বিশেষ। আল্লাহ তা’আলা তাঁর বান্দাদের মধ্যে যাদের প্রতি ইচ্ছা করেন তাদের উপর তা প্রেরন করেন। আর আল্লাহ তা’আলা তাঁর মুমিন বান্দাগনের উপর তা (আযাবের সুরতে) রহমত স্বরূপ করে দিয়েছেন। কোন ব্যাক্তি যখন প্লেগাক্রান্ত স্থানে সাওয়াবের আশায় ধৈর্য ধরে অবস্থান করে এবং তার অন্তরে দৃঢ় বিশ্বাস থাকে যে, আল্লাহ তাকদীরে যা লিখে রেখেছেন তাই হবে। তবে সে একজন শহীদের সমান সওয়াব পাবে।

সহীহ বুখারী (ইফাঃ) / হাদিস নাম্বার: 3228

প্লেগ ও দাজ্জালের প্রবেশ থেকে মদীনা সুরক্ষিত

ইয়াহইয়া ইবনু ইয়াহইয়া (রহঃ) … আবূ হুরায়রা (রাঃ) থেকে বর্ণিত। তিনি বলেন, রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেনঃ

মদিনার প্রবেশ পথে ফিরিশতাগণ প্রহরারত। সেখানে প্লেগ ও দাজ্জাল প্রবেশ করতে পারবে না।

সহীহ মুসলিম (ইফাঃ) / হাদিস নাম্বার: 3220

শহীদদের প্রকারভেদ

উক্ত রাবী রাদিয়াল্লাহু আনহু হতে বর্ণিত, তিনি বলেন, একদা রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বললেন,

রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বললেন, আল্লাহ তা’আলা তার নিয়্যত অনুযায়ী তাকে শাহাদাতের সওয়াব দিয়ে দিয়েছেন। আচ্ছা, তোমরা শাহাদাত কাকে মনে কর? তারা বললেন, আল্লাহর রাস্তায় মৃত্যুবরণ করাকে। রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম) বললেন, আল্লাহর রাস্তায় মৃত্যুবরণ করা ব্যতীতও আরো সাত প্রকারের শাহাদাত আছে-

১. প্লেগ রোগে মৃত ব্যক্তি শহীদ

২. পেটের পীড়ায় মৃত ব্যক্তি শহীদ

৩. পানিতে ডুবে মৃত ব্যক্তি শহীদ

৪. প্রাচীর চাপায় মৃত ব্যক্তি শহীদ

৫. আভ্যন্তরীণ বিষ ফোঁড়ায় মৃত ব্যক্তি শহীদ

৬. অগ্নিদাহে মৃত ব্যক্তি শহীদ

৭. প্রসবকালে মৃত রমনী শহীদ।

[সহীহ। ইবন মাজাহ ২৮০৩]

অশ্লীলতার শাস্তি হল মহামারী/প্লেগ

আবদুল্লাহ ইবনে উমার (রাঃ) থেকে বর্ণিত। তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম আমাদের দিকে এগিয়ে এসে বলেনঃ

হে মুহাজিরগণ! তোমরা পাঁচটি বিষয়ে পরীক্ষার সম্মুখীন হবে।তবে আমি আল্লাহর কাছে আশ্রয় প্রার্থনা করছি যেন তোমরা তার সম্মুখীন না হও। যখন কোন জাতির মধ্যে প্রকাশ্যে অশ্লীলতা ছড়িয়ে পড়ে তখন সেখানে মহামারী আকারে প্লেগরোগের প্রাদুর্ভাব হয়। তাছাড়া এমন সব ব্যাধির উদ্ভব হয়, যা পূর্বেকার লোকেদের মধ্যে কখনো দেখা যায়নি। যখন কোন জাতি ওযন ও পরিমাপে কারচুপি করে তখন তাদের উপর নেমে আসে দুর্ভিক্ষ, কঠিন বিপদ-মুসীবত এবং যাকাত আদায় করে না তখন আসমান থেকে বৃষ্টি বর্ষণ বন্ধ করে দেয়া হয়। যদি ভূ-পৃষ্ঠি চতুস্পদ জন্তু ও নির্বাক প্রাণী না থাকতো তাহলে আর কখনো বৃষ্টিপাত হতো না। যখন কোন জাতি আল্লাহ ও তাঁর রাসূলের অঙ্গীকার ভঙ্গ করে, তখন আল্লাহ তাদের উপর তাদের বিজাতীয় দুশমনকে ক্ষমতাশীন করেন এবং সে তাদের সহায়-সম্পদ সবকিছু কেড়ে নেয়। যখন তোমাদের শাসকবর্গ আল্লাহর কিতাব মোতাবেক মীমাংসা করে না এবং আল্লাহর নাযিলকৃত বিধানকে গ্রহণ করে না, তখন আল্লাহ তাদের পরস্পরের মধ্যে যুদ্ধ বাঁধিয়ে দেন।

সুনানে ইবনে মাজাহ / হাদিস নাম্বার: 4019

মহামারীর মৃত্যু হচ্ছে প্রত্যেকটি মুসলিম ব্যক্তির জন্যে শাহাদত

হামিদ ইবনু উমার আল বাকরাভী (রহঃ) … হাফসা বিনত সীরীন (রহঃ) থেকে বর্ণনা করেন যে, তিনি বলেছেন, আনাস ইবনু মালিক (রাঃ) আমাকে জিজ্ঞাসা করলেন, ইয়াহইয়া ইবনু আবূ আমরা কিসে মারা গেলেন? আমি বললাম, প্লেগগ্রস্থ হয়ে। তিনি (হাফসা) বলেন, তখন তিনি (আনাস) বললেন, রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেনঃ

প্লেগ হচ্ছে প্রত্যেকটি মুসলিম ব্যক্তির জন্যে শাহাদত স্বরূপ।

সহীহ মুসলিম (ইফাঃ) / হাদিস নাম্বার: 4791

মহামারী কেয়ামতের আলামত

হুমাইদী (রহঃ) … আউফ ইবনু মালিক (রাঃ) থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, আমি তাবুক যুদ্ধে রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এর নিকট এলাম। তিনি তখন একটি চর্ম নির্মিত তাবুতে ছিলেন। রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বললেন,

কিয়ামতের পূর্বের ছয়টি আলামত গণনা করে রাখো। আমার মৃত্যু, তারপর বায়তুল মুকাদ্দাস বিজয়, তারপরও তোমাদের মাঝে ঘটবে মহামারী, বকরীর পালের মহামারীর মত, সম্পদের প্রাচুর্য, এমনকি এক ব্যাক্তিকে একশ’ দ্বীনার দেওয়া সত্ত্বেও সে অসন্তুষ্ট থাকবে। তারপর এমন এক ফিতনা আসবে যা আরবের প্রতি ঘরে প্রবেশ করবে। তারপর যুদ্ধ বিরতির চুক্তি-যা তোমাদের ও রোমকদের (খৃষ্টানদের) মধ্যে সম্পাদিত হবে। এরপর তারা বিশ্বাসঘাতকতা করবে এবং আশিটি পতাকা উত্তোলন করে তোমাদের মোকাবিলায় আসবে; প্রত্যেক পতাকা তলে বার হাজার সৈন্য দল থাকবে।

সহীহ বুখারী (ইফাঃ) / হাদিস নাম্বার: 2952

আমাদের লেখা পাঠান 

  • আল গাশিয়াহ Al-Gashiya
    بِسْمِ اللَّهِ الرَّحْمَٰنِ الرَّحِيمِ 1 هَلْ أَتَاكَ حَدِيثُ الْغَاشِيَةِ  আপনার কাছে আচ্ছন্নকারী কেয়ামতের বৃত্তান্ত পৌঁছেছে কি?  2 وُجُوهٌ يَوْمَئِذٍ خَاشِعَةٌ  অনেক মুখমন্ডল সেদিন হবে লাঞ্ছিত,  3 عَامِلَةٌ نَاصِبَةٌ  ক্লিষ্ট, ক্লান্ত।  4 تَصْلَىٰ نَارًا حَامِيَةً  তারা জ্বলন্ত আগুনে পতিত হবে।  5 تُسْقَىٰ مِنْ عَيْنٍ آنِيَةٍ  তাদেরকে ফুটন্ত নহর থেকে পান করানো হবে।  6 لَيْسَ لَهُمْ طَعَامٌ إِلَّا مِنْ ضَرِيعٍ  কন্টকপূর্ণ ঝাড় ব্যতীত
  • কতদূর এর সফর আর তুমি কিনা সম্বলহীন
    সফর অনেক দূরের। কিন্তু আমিতো সহায়-সম্বলহীন। আমিতো পাথেয় হীন। তোমাকে বলছি! কেন তোমার চোখ অশ্রুহীন? কেন তোমার অন্তর পাথরের মত শক্ত ও কঠিন? তুমিতো দুঃখ-দুর্দশার উপযুক্ত। কারণ তুমি যে প্রতিদিন নতুন করে পাপের সাগরে আরো বেশি করে ডুব দিয়ে যাচ্ছ। তোমাকে আর কিসে জাগিয়ে তুলতে পারে। যে ঘুমের ভান করে পড়ে থাকে তার ঘুম কখনোই
  • 89-আল ফজর Al-Fajr
    بِسْمِ اللَّهِ الرَّحْمَٰنِ الرَّحِيمِ  1  وَالْفَجْرِ  শপথ ফজরের,  2 وَلَيَالٍ عَشْرٍ  শপথ দশ রাত্রির, শপথ তার,  3 وَالشَّفْعِ وَالْوَتْرِ  যা জোড় ও যা বিজোড়  4 وَاللَّيْلِ إِذَا يَسْرِ  এবং শপথ রাত্রির যখন তা গত হতে থাকে  5 هَلْ فِي ذَٰلِكَ قَسَمٌ لِذِي حِجْرٍ  এর মধ্যে আছে শপথ জ্ঞানী ব্যক্তির জন্যে।  6 أَلَمْ تَرَ كَيْفَ فَعَلَ رَبُّكَ بِعَادٍ  আপনি কি লক্ষ্য করেননি,
  • আল বালাদ Al-Balad
       بِسْمِ اللَّهِ الرَّحْمَٰنِ الرَّحِيمِ 1 لَا أُقْسِمُ بِهَٰذَا الْبَلَدِ  আমি এই নগরীর শপথ করি  2 وَأَنْتَ حِلٌّ بِهَٰذَا الْبَلَدِ  এবং এই নগরীতে আপনার উপর কোন প্রতিবন্ধকতা নেই।  3 وَوَالِدٍ وَمَا وَلَدَ  শপথ জনকের ও যা জন্ম দেয়।  4 لَقَدْ خَلَقْنَا الْإِنْسَانَ فِي كَبَدٍ  নিশ্চয় আমি মানুষকে শ্রমনির্ভররূপে সৃষ্টি করেছি।  5 أَيَحْسَبُ أَنْ لَنْ يَقْدِرَ عَلَيْهِ أَحَدٌ  সে কি মনে করে
  • আশ-শামস Ash-Shams
      بِسْمِ اللَّهِ الرَّحْمَٰنِ الرَّحِيمِ 1 وَالشَّمْسِ وَضُحَاهَا  শপথ সূর্যের ও তার কিরণের,  2 وَالْقَمَرِ إِذَا تَلَاهَا  শপথ চন্দ্রের যখন তা সূর্যের পশ্চাতে আসে,  3 وَالنَّهَارِ إِذَا جَلَّاهَا  শপথ দিবসের যখন সে সূর্যকে প্রখরভাবে প্রকাশ করে,  4 وَاللَّيْلِ إِذَا يَغْشَاهَا  শপথ রাত্রির যখন সে সূর্যকে আচ্ছাদিত করে,  5 وَالسَّمَاءِ وَمَا بَنَاهَا  শপথ আকাশের এবং যিনি তা নির্মাণ করেছেন, তাঁর।  6 وَالْأَرْضِ وَمَا

Leave a Reply

SHOPPING CART

close
%d bloggers like this: